W,W,W,W শেষ ওভারে 4 উইকেট শামির, 19 তম ওভারে দুর্দান্ত হর্ষল, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অবিশ্বাস্য জয় ভারতের

হোয়াটস্যাপ গ্রুপ জয়েন
Google News Follow

অস্ট্রেলিয়ায় ২০২২ এর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শুরু হতে আর কিছুদিন বাকি। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে প্রাকটিস ম্যাচ খেলা হয় যাতে ভারত ছয় রানের একটি দুর্দান্ত জয় নিবন্ধন করেছে। ভারতের কুড়ি ওভারে ১৮৭ রানের টার্গেটের জবাবে অস্ট্রেলিয়া দল কুড়ি ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৮০ রান করতে পারে। ভারতের জয়ের নায়ক মহম্মদ শামি, যিনি এক ওভারে চার রান দিয়ে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নিয়েছেন।

১৮৭ রানের কঠিন লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা খুব ভালো শুরু করেছিল।৪.৪ ওভারে অস্ট্রেলিয়া ৫০ রানের গণ্ডি পার করে বিনা উইকেটে। মিচেল মার্শকে খুব বিপজ্জনক ব্যাটিং করতে দেখা যায়। মার্চ ১৮ বলে ৩৫ রান করেন। ষষ্ঠ ওভারে মার্শকে আউট করেন ভুবনেশ্বর কুমার।

৬৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া।এরপর অস্ট্রেলিয়ার রানের হারে অঙ্কুশ লাগে। স্টিভ স্মিথকে চাহালের বলে বোল্ড হতে দেখা যায়। বড় শট খেলেও সাফল্য পাননি স্টিভ স্মিথ।অনেক সংগ্রামের পর স্মিথ ১২ বলে মাত্র ১১ রান করে। তবে অ্যারন ফিঞ্চ একপ্রান্ত থেকে ব্যাটিং চালিয়ে ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার দখল বজায় রাখার চেষ্টা চালিয়ে যায়।

ফিঞ্চ একপ্রান্তে থেকে ব্যাটিং করে ৪০ বলে তার হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। অ্যারন ফিঞ্চ ও ম্যাক্সওয়েল সুন্দর পার্টনারশিপ করছিলেন।ম্যাক্সওয়েল বিশেষভাবে চাহালকে টার্গেট করেন। ম্যাক্সওয়েল ১৬ বলে ২৩ রান করেন।

ফিঞ্চ ও ম্যাক্সওয়েল পরপর আউট হওয়ায় ম্যাচের গতি মুষড়ে যায়।  বিফোর লাস্ট ওভারে বিরাট কোহলির দুর্দান্ত ফিল্ডিং এর জন্য টিম ডেভিড রান আউট হন। ডাইরেক্ট হিটে টিম ডেভিডকে রান আউট করেন বিরাট। এরপর অধিনায়ক রোহিত শর্মা মহম্মদ শামিকে লাস্ট ওভারে বল করার জন্য মাঠে ডাকেন।

ম্যাচে জয়ের জন্য শেষ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল ১১ রানের। অধিনায়ককে নিরাশ হতে দেননি শামি। শামির ওভারের তৃতীয় বলে আউট হন কামিন্স,চতুর্থ বলে শামি রান আউট করেন আগারকে। ওভারের শেষ দুই বলে প্রথমে ইংলিশ ও পরে রিচার্ডসনকে বিষাক্ত ইয়রকার বলে বোল্ড করে ভারতকে ৬ রানের জয় এনে দেন শামি।

এই প্র্যাকটিস ম্যাচে টসে জিতে অস্ট্রেলিয়া ভারতকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায়।  জবাবে ভারতের হয়ে কেএল রাহুল ৩৩ বলে ৫৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। ভারতের মিডল অর্ডার অবশ্য তেমন পারফর্ম করতে পারেনি। কিন্তু সূর্যকুমার যাদব তার দুর্দান্ত ফর্ম অব্যাহত রাখেন এবং ৩৩ বলে ৫০ রান করেন। এই দুজনের হাফ সেঞ্চুরির জন্য টিম ইন্ডিয়া ২০ ওভারে ৭ উইকেট খুইয়ে ১৮৬ রান তুলতে সক্ষম হয়।

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সবচেয়ে কার্যকর বোলার কেন রিচার্ডসন ৪ উইকেট নেন। একটি করে উইকেট পান মিচেল স্টার্ক, ম্যাক্সওয়েল ও আগার।

Leave a Comment