ভারতের বিরুদ্ধে ৭ বছর পর আবারও রেকর্ড করলো বাংলাদেশ! ধোনির পর লজ্জার হার স্বীকার এবার রোহিত !!

হোয়াটস্যাপ গ্রুপ জয়েন
Google News Follow

দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে টাইগার বাহিনীর রুদ্ধশ্বাস জয়। ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশ নিজেদের করে নিলেও সিরিজটা। আজকে সব থেকে বেশি আকর্ষণীয় ছিল ম্যাচের ক্লাইম্যাক্স। দর্শক মন্ডলী রোহিত শর্মার পারফরম্যান্সের উপর চোখ রেখেছিলেন। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের মধ্যে আজকের ম্যাচটি ছিল দ্বিতীয় ম্যাচ। ভারতকে এক উইকেটে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে হারতে হয়েছিল। আর রোহিত শর্মা আজকের ম্যাচে দুর্দান্ত লড়াই করেও হেরে গেল পাঁচ রানে।

আরো একবার ভারত সিরিজ খইয়ে বসলো বাংলাদেশের মাটিতে। লিটন দাস নতুন অধিনায়কত্ব এই সিরিজে পেয়ে আলাদা এক কৃতি গড়লো। সিরিজে ২-০ ব্যবধানে বাংলাদেশকে এগিয়ে দিয়ে সিরিজ জিতে নিল। এই রেকর্ডটি তাদের মাটিতে ৭ বছর পর। সাত বছর পর বাংলাদেশে গিয়ে ভারত সিরিজ হারালো। এর আগে ২০১৫ সালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এমএস ধোনির নেতৃত্বে ভারত ১-২ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছিল। তাদের বাংলাদেশের মাটিতে হারানো যে সত্যিই কঠিন আরো একবার তা প্রমাণ হয়ে গেল।

এই ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ৭ উইকেটে ২৭১ রান তোলে প্রথমে ব্যাট করে। বাংলাদেশের শুরুটা খুব একটা ভালো হয়নি। টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা যখন একের পর এক ব্যর্থ হয়েছেন তখন মেহেদী হাসান মিরাজ এবং মাহমুদুল্লাহর সমর্থকদের মন জয় করেছে। ৮৩ বলে হাসান মিরাজ অপরাজিত ১০০ করেন এবং ৯৬ বলে ৭৭ রান করেন মাহমুদুল্লাহর। সেরা ছিল এই দুইজনের ইনিংস। বাংলাদেশ লড়াই করার মত স্কোর করে এই দুজনের রানের উপর ভর করে। সফল হয়েছেন বল হাতে ওয়াশিংটন সুন্দর ৩ উইকেট এবং দুটি করে উইকেট নেন মহম্মদ সিরাজ, উমরান মালিক।

রোহিত শর্মার খেলা চলাকালীন এদিন ওপেনিং করতে নামেন চোটের কারণে বিরাট কোহলি ও শিখর ধাওয়ান। কিন্তু তারা ফিরে যান ১৩ রান করে। শ্রেয়স আইয়ার তিন নম্বর ব্যাট করতে আসেন। তিনি ম্যাচের এক প্রান্ত একাই ধরে রাখেন। তাকে সঙ্গ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন সুন্দর ও রাহুল উভয়ই। এরপর অক্ষর প্যাটেল শ্রেয়াসকে সঙ্গ দিতে আসে। ১০১ বলে ১০৭ রানের পার্টনারশিপ করে তারা। আইয়ার ১০২ বলে ৮২ রান করে এবং অক্ষর প্যাটেল ফিরে যান ৫৬ বলে ৫৬ রান করে।

এরপর হাতের চোটের কারণে ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা ৯ নম্বরে ব্যাট করতে নামেন। তিনি ভারতকে জেতানোর জন্য ২৮ বলে ৫১ রানের অপরাজিতা ইনিংস খেলে আপ্রাণ চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন তিনি। তবে কাউকেই পাশে পায়নি রোহিত। অবশেষে ভারতের ইনিংস ২৬৬ রানে শেষ হয়। বাংলাদেশ যেখানে পাঁচ রানে জয় হাসিল করে নেয়। ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি লিটনের বাংলাদেশ সিরিজটাও নিজেদের করে নিল। আরেকটি ওয়ানডে ম্যাচ ভারতের বাকি আছে অর্থাৎ সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচ আগামী শনিবার। যদি বাংলাদেশ এই ম্যাচটি জিততে পারে তাহলে এক আলাদা রেকর্ড গড়বে ভারতের বিরুদ্ধে।