ধোনি অবসর নেওয়ার পর থেকেই ডুবতে বসেছিল ক্যারিয়ার, এখন T-20 বিশ্বকাপের টিমেও মিলল না জায়গা

হোয়াটস্যাপ গ্রুপ জয়েন
Google News Follow

ভারতীয় দলের স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য(T-20 World Cup)। এবারের বিশ্বকাপের জন্য নির্বাচকরা ভারতীয় দলে এমন এক খেলোয়াড় আছে যাকে বেছে নেয়নি এবং তিনি আর অংশ নন ভারতীয় দলে পারফর্ম করার। কে সেই খেলোয়াড় আপনারা নিশ্চয়ই ভাবছেন, আপনাকে আমরা বলি তিনি আর কেউ নন, তিনি হলেন চায়নাম্যান বোলার কুলদীপ যাদব(Kuldeep Yadav)। তবে মহেন্দ্র সিং ধোনি (MS Dhoni)অবসর নেওয়ার পর থেকেই গুরুত্ব কমেছে এই খেলোয়াড়ের।

নির্বাচকরা বেছে নিয়েছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য রবিচন্দ্র অশ্বিন, অক্ষর প্যাটেল ও যুজুবেন্দ্র চাহাল এই তিন স্পিনারকে। কিন্তু কুলদীপের রেকর্ড অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে খুব ভালো। বোলিংয়ের কায়দায় তিনি বিরোধী দলকে চাপে ফেলতে পারেন।

২০২০ সালে ধোনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর থেকেই গুরুত্ব কমেছে কুলদীপের। তাকে ধনী চিনতেন এবং বিরোধীপক্ষ ব্যাটসম্যানকে ফাঁদে ফেলতেন উইকেটের পিছন থেকে পরামর্শ দিয়ে। তিনিও সেই সময় দুর্দান্ত কাজ করেছেন ভারতীয় দলের হয়ে। কিন্তু সেই ভাবে তার বোলিংয়ে ধারালো দেখা যায়নি ধোনির অবসর নেয়ার পর থেকে। কুলদীপ যাদব এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, “তিনি ধোনিকে খুব মিস করছেন। তার কাছে ধোনির জন্য একটা আলাদা জায়গা।”

ভারতীয় দলের দায়িত্ব কোহলির উপর আসে ধনী অবসর নেওয়ার পর এবং রবি শাস্ত্রী তখন প্রধান কোচ। তখন থেকে ভারতীয় দলে এই খেলোয়াড় খুব কম সুযোগ পেতেন। তারপর তার ক্যারিয়ার কেটেছে কখনো দলের ভিতরে আবার কখনো দলের বাইরে এইভাবে। আপনাকে আমরা বলছি দুটি হ্যাটট্রিক আছে ওডিআইতে এই চায়নাম্যানের। তার কাছে এই সময় প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে অশ্বিন, চাহাল, ওয়াশিংটন সুন্দর, রবীন্দ্র জাদেজা ও বরুণ চক্রবর্তীর অনেক বড় বড় নাম ছিল এবং বেশি দলের সুযোগ তাদের কি দেওয়া হতো।

আপনাকে আমরা বলছি, কোহলি ও অনিল কুম্বলের মধ্যে কুলদীপ যাদবকে ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। হ্যাঁ,২০১৭ সালে যখন অস্ট্রেলিয়া ভারত সফরে এসেছিলেন তখন অধিনায়ক কোহলি ও প্রাক্তন কোচ অনিল কুম্বলের বিবাদ বাধে। ভারতীয় দলে কুলদীপ যাদব কে অন্তর্ভুক্ত করা হোক কুম্বলে চেয়েছিল, আর তা প্রত্যাখ্যান করেছিল কোহলি।

কুলদীপের ক্রিকেট ক্যারিয়ার দুর্দান্ত ছিল তিনি ভালো পারফরম্যান্স করেছেন ভারতীয় দলের হয়ে। ২৫টি ম্যাচ টি-টোয়েন্টিতে খেলে ৪৪টি উইকেট নিয়েছেন। ৬৯ টি ওডিআই ম্যাচ খেলে শিকার হন ১১২টি উইকেটের এবং তিনি ২৬ টি উইকেট নেন ৭ টি টেস্ট ম্যাচ খেলে।

Leave a Comment