ভারতীয় ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে উঠলো মানহানির মামলা, দিতে হবে এই জরিমানা !!

হোয়াটস্যাপ গ্রুপ জয়েন
Google News Follow

শিখর ধাওয়ান তার একটি আবেদনে দাবি করেছিলেন যে সবার কাছে কিছু তথ্য প্রচার করে তার প্রাক্তন স্ত্রী আয়েশা তার ক্যারিয়ার এবং খ্যাতি নষ্ট করার হুমকি দিচ্ছেন। দিল্লির একটি আদালত থেকে তার প্রাক্তন স্ত্রী আয়েশা মুখার্জির বিরুদ্ধে শিখর ধাওয়ান একটি নিষেধাজ্ঞের আদেশ পেয়েছেন তিনি যাতে ভারতীয় ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে বা সংবাদপত্র ও তার বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়-স্বজন বা অন্য কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনরকম মানহানিকর মন্তব্য করতে না পারে, যা তা খ্যাতিকে কলঙ্কিত করতেও পারে।

READ MORE : ফিটনেসের বিষয়ে বিরাটকে দেখে শিখুক রোহিত, আর্জি কপিল দেবের !!

অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক আয়েশার যদি কোন রকম অভিযোগ থাকে তাহলে পাতিয়ালা হাউস কোর্টের বিচারক হরিশ কুমার বলেছিলেন ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের কাছে বলতে। বিয়ের 8 বছর পর 2021 সালের সেপ্টেম্বরে ধাওয়ান মুখার্জির থেকে আলাদা হয়ে যান। ধাওয়ানের থেকে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক 12 বছরের বড় ছিল। জোরাভার নামে এই দম্পতির একটি ছেলেও আছে। সে মুখার্জির হেফাজতে রয়েছে।

খ্যাতি হলো একজন ব্যক্তির কাছে সবথেকে প্রিয় এবং এটিকে বিবেচিত করা হয় সর্বোচ্চ ডিগ্রির সম্পত্তি হিসেবে কারণ বস্তুগত সম্পত্তির ক্ষতি হয়ে যাওয়ার পরেও ফিরে পাওয়া যায়। কিন্তু একবার খ্যাতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেলে সেটা পুনরুদ্ধার করা যায় না। শিখর ধাওয়ান $75 মিলিয়ন বিশ্বব্যাপী বিনিয়োগ ক্রীড়া প্রযুক্তি তহবিল ঘোষণা করেছেন

READ MORE : IND vs AUS 2023 : সচিনের রেকর্ড ভেঙে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম ২৫,০০০ রান পূরণ করলেন বিরাট কোহলি !!

বিচারক আদেশে বলেছিলেন,”অতএব, রক্ষা করতে হবে এটিকে। তবে এটি সত্যি যে যদি কারো বিরুদ্ধে আইনানুগ অভিযোগ থাকে তবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তার অভিযোগ প্রকাশ করা থেকে বিরত রাখা যাবে না।” ধাওয়ান তার একটি আবেদনে দাবি করেছিলেন যে ভারতীয় ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ সহ সকলের কাছে তার স্ত্রী আয়েশা কিছু তথ্য প্রচার করে তার ক্যারিয়ার এবং খ্যাতি নষ্ট করার হুমকি দিচ্ছেন।

অ্যাডভোকেট আমান হিঙ্গোরানির মাধ্যমে ধাওয়ান তার একটি আবেদনে দাবি করেছেন যে ইতিমধ্যেই তার স্ত্রী বার্তা শেয়ার করেছেন যে তিনি তাকে কোন অর্থ দেননি বেঁচে থাকার জন্য এবং তিনি মেয়ের প্রেমিকের কাছ থেকে টাকা ধার করতে বাধ্য হয়েছিলেন।

READ MORE : ছেলেকে ক্রিকেটার বানাতে নিজের ব্যবসা পর্যন্ত করে দিয়েছিলেন বিক্রি, আজ সেই ছেলে ২০ কোটি টাকার মালিক !!

তিনি আরো দাবি করেছিলেন যে তার স্ত্রী অভিযোগ করেছেন তার সাথে খারাপ আচরণের জন্য এবং এই একই কথা বলেছিলেন তাদের সাধারণ বন্ধু, সহকর্মী, ক্রিকেটার এবং ক্রিকেট কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের কাছে। তিনি পরিবর্তে উল্লেখ করেছেন যে তিনি প্রতিমাসে অস্ট্রেলিয়ান $17,500 (মর্টগেজ পেমেন্ট সহ) প্রদান করছিলেন স্কুলের ফি, স্কুলের ইউনিফর্ম ইত্যাদি।