TOP 5 : ৫ খেলোয়াড় যারা বিরাট কোহলির মতোই ওডিআই ফরম্যাটে রাজত্ব করতে পারে !!

হোয়াটস্যাপ গ্রুপ জয়েন
Google News Follow

যাই হোক, কোহলির পদাঙ্ক অনুসরণ করার এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটেই আধিপত্য স্থাপন করার সম্ভাবনা আছে এমন কিছু তরুণ ভারতীয় খেলোয়াড় রয়েছে। এই নিবন্ধে এমনই পাঁচজন ভারতীয় খেলোয়াড়কে আমরা দেখব যারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটে বিরাট কোহলির মতো আধিপত্য বিস্তার করতে পারে। ৫ ভারতীয় খেলোয়াড় যারা বিরাট কোহলির মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটেই কর্তৃত্ব করতে পারে

১. শুভমান গিল

ভারতীয় ক্রিকেটের সব থেকে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন হলেন শুভমান গিল। ২০২০ সালে ভারতের হয়ে তিনি টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক করেছিলেন এবং তারপর থেকে ম্যাচের দীর্ঘতম ফরম্যাটে তিনি নিজেকে একজন শক্ত ওপেনার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছেন। এই পর্যন্ত গিল ১৩টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ৭৩৬ রান করেছে এবং তার গড় সংখ্যা হল ৩২.০। ইতিমধ্যেই তিনি এই ফরম্যাটে একটি সেঞ্চুরি ও চারটি অর্ধশতক করেছেন।

গিল ওয়ানডেতেও তার ক্লাস দেখিয়েছেন। ভারতের হয়ে তিনি ২১ টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ১২৫৪ রান করেছেন ৭৩.৮ এর চিন্তাকর্ষক গড়ে। তার নামে এই ফরম্যাটে চারটি সেঞ্চুরি আছে এবং তিনি কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন দলের জন্য।ভারতের হয়ে গিল কয়েকটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন এবং এই ফরম্যাটেও ইতিমধ্যেই তার সম্ভাবনা দেখিয়েছেন। যে ছয়টি ম্যাচ তিনি খেলেছেন, গিল ২০২ রান করেছেন ৪০.৪ গড়ে এবং তার স্ট্রাইক রেট হল ১৬৫.৬।

এখনো পর্যন্ত শুভমান গিল অসাধারণ সম্ভাবনা দেখিয়েছেন তার সংক্ষিপ্ত আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে। ইতিমধ্যেই নিজেকে একজন শক্ত ওপেনার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রতিষ্ঠিত করেছেন এবং তিনি টেস্ট ক্রিকেটেও তার ক্লাস দেখিয়েছেন। গিল সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন হওয়ার সম্ভাবনা আছে তার দৃঢ় কৌশল এবং দীর্ঘ ইনিংস খেলার ক্ষমতা দিয়ে। সে যদি কঠোর পরিশ্রম করে এবং ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করে তাহলে ভবিষ্যতে আধিপত্য বিস্তার করতে পারবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটেই।

২. শ্রেয়াস আইয়ার

একজন প্রতিভাবান মিডিল অর্ডার ব্যাটসম্যান হলেন শ্রেয়াস আইয়ার, যিনি ভারতের জন্য সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফর্মার। ২০১৭ সালে তিনি ভারতের হয়ে ওডিআইতে অভিষেক করেছিলেন এবং তারপর থেকে ৪২ টি ম্যাচ খেলেছেন এবং ১৬৩১ রান করেছেন ৪৬.৬ গড়ে। তিনি দুটি সেঞ্চুরি এবং ১৪ টি অর্ধশতক করেছেন এই ফরম্যাটে এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন দলের জন্য।

টি-টোয়েন্টিতে ভারতের হয়ে আইয়ার ৪৯ টি ম্যাচ খেলেছেন এবং ১০৪৩ রান করেছেন ৩০.৭ গড়ে। এই ফরম্যাটে তার ১৩৬.০ স্ট্রাইক রেট এবং সাতটি অর্থশতক করেছেন তিনি। ২০২১ সালের টেস্ট ক্রিকেটে আইয়ার ভারতের হয়ে অভিষেক করেছিলেন এবং ইতিমধ্যে তিনি তার ক্লাস দেখিয়েছেন এই ফরম্যাটে। এখনো পর্যন্ত তিনি চারটি ম্যাচ খেলে ৬৪০ রান করেছেন এবং তার গড় সংখ্যা হল ৪৯.২। তিনি একটি সেঞ্চুরি এবং পাঁচটি অর্ধশতক করেছেন টেস্ট ক্রিকেটে এবং ভারতের জন্য তিনি একজন শক্ত মিডিল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

একজন বহুমুখী ব্যাটসম্যান হলেন আইয়ার তিনি রান করতে পারেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটেই। তার শক্ত কৌশল এবং চাপের মধ্যে বড় ইনিংস খেলার ক্ষমতা রয়েছে। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স এবং তার টেস্ট ক্রিকেটে সাম্প্রতিক সাফল্যের মাধ্যমে, আগামী বছরগুলোতে আইয়ার বিশ্বের শীর্ষ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ধারাবাহিকভাবে তিনি পারফর্ম করতে থাকলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটেই বিরাট কোহলির মতো আধিপত্য বিস্তার করতে পারেন।

৩. মোহাম্মদ সিরাজ

ভারতীয় ক্রিকেটের একজন উঠতি তারকা হলেন মোহাম্মদ সিরাজ, তিনি খেলার সব ফরম্যাটে তার চিত্রকর্ষক পারফরম্যান্স দিয়ে একটি নাম তৈরি করেছে নিজের জন্য। ২০২০ সালে ভারতের হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে সিরাজের অভিষেক হয় এবং তারপর থেকে তিনি 17 টি ম্যাচ খেলেছেন ৩১ গড়ে এবং ৪৭ টি উইকেট নিয়েছেন। তুমি দু’বার টেস্ট ক্রিকেটের পাঁচটি উইকেট শিকার করেছেন এবং তার সেরা বোলিং ফিগার হলো ৫/৭৩। সাম্প্রতিক সময়ে সিরাজ ভারতের সবথেকে ধারাবাহিক বোলারদের মধ্যে একজন এবং টেস্ট ক্রিকেটে ভারতের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

সিরাজ ওয়ানডেতে ২১ টি ম্যাচ খেলে ৩৮ টি উইকেট নিয়েছেন ২০.৭ গড়ে। এই ফরম্যাটে তার ৪/৩২ সেরা বোলিং ফিগার এবং তার ইকোনমি রেট হল ৪.৬১। ভারতের হয়ে সিরাজ ৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন এবং ১১ টি উইকেট নিয়েছেন এই ফরম্যাটে। তার টি-টোয়েন্টিতে সেরা বোলিং ফিগার হলো ৪/১৭, এবং তার ৯.১৮ ইকোনমি রেট ছিল।

সিরাজ পরিচিত তার বল সুইং করার ক্ষমতা এবং লাইন এবং লেন্থের উপর তার চমৎকার নিয়ন্ত্রণের জন্য। রিভার্স সুইংয়ের একজন ভালো বাহক তিনি এবং তিনি ভালো গতি তৈরি করার ক্ষমতা রাখেন। খেলার সব ফরম্যাটে তার চিত্রকর্ষক পারফরম্যান্সের জন্য ভারতের সব থেকে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ ফাস্ট বোলারদের মধ্যে সিরাজ একজন হিসেবে অভিভূত হয়েছে। ধারাবাহিকভাবে তিনি পারফর্ম করতে থাকলে বিরাট কোহলির মতো আধিপত্য বিস্তার করতে পারেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের টিম ফরম্যাটেই।

৪. ঋষভ পন্থ

একজন গতিশীল উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হলেন ঋষভ পন্থ, খেলার সমস্ত ফরম্যাটে তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছেন। ২০১৮ সালের টেস্ট ক্রিকেটে পন্থ ভারতের হয়ে অভিষেক করেছিলেন এবং তারপর থেকে তিনি ৩৩ টি ম্যাচ খেলে ২২৭১ রান করেছেন ৪৩.৭ গড়ে। তার নামে টেস্ট ক্রিকেটে পাঁচটি সেঞ্চুরি রয়েছে, যার মধ্যে তার সর্বোচ্চ স্কোর হল ১৫৯*। পন্থের পারফরম্যান্স টেস্ট ক্রিকেটে অসাধারণ, এবং ইতিমধ্যেই তিনি নিজেকে বিশ্বের অন্যতম সেরা উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

পন্থ ওডিআই ক্রিকেটে ৩০ টি ম্যাচ খেলে ৮৬৫ রান করেছেন ৩৪.৬ গড়ে। তার সর্বোচ্চ স্কোর হল ১২৫*এবং ১০৬.৭ হারে তিনি আঘাত করেছেন। ভারতের হয়ে পন্থ ৬৬ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ৯৮৭ রান করেছে এবং তার গড় সংখ্যা হল ২২.৪। তার সর্বোচ্চ স্কোর হল ৬৫* এবং তার স্ট্রাইক রেট হলো ১২৬.৪।

পন্থ পরিচিত তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শৈলী এবং খেলার সব ফরম্যাটে দ্রুত রান করার ক্ষমতার জন্য। এছাড়াও একজন চমৎকার উইকেট রক্ষক তিনি এবং কিছু অসাধারণ ক্যাচ নিয়েছে স্ট্যাম্পের পিছনে থেকে। তার এই চিত্রকর্ষক পারফরম্যান্সের মাধ্যমে, বিশ্ব ক্রিকেটে অন্যতম উত্তেজনাপূর্ণ তরুণ প্রতিভা হিসাবে পন্থ আবির্ভূত হয়েছেন। ধারাবাহিকভাবে তিনি পারফর্ম করতে থাকলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই বিরাট কোহলির মতো আধিপত্য বিস্তার করতে পারেন।

৫. অক্ষর প্যাটেল

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে অক্ষর প্যাটেল ভারতীয় ক্রিকেট দলের একটি মূল্যবান সম্পদ। তিনি এমন একজন অলরাউন্ডার যিনি ব্যাট এবং বল উভয় ক্ষেত্রেই অবদান রাখতে পারেন। অক্ষর ব্যাটেল টেস্ট ক্রিকেটে ১০টি ম্যাচ খেলে ৪৮ টি উইকেট নিয়েছেন এবং তার গড় সংখ্যা হল ১৫.৪। ব্যাট হাতে তিনি ৪০৭ রান করেছেন, যার মধ্যে তার সর্বোচ্চ ৮৪ রান রয়েছে।

অক্ষর প্যাটেল একদিনের আন্তর্জাতিকে (ওডিআই) ৪৯ টি ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৫৬ টি উইকেট। ৩৮১ রান করেছেন তিনি, তার সর্বোচ্চ স্কোর হল ৬৪। ওয়ানডেতে তার ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট হলো ১০৫.২। অক্ষর প্যাটেল টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিককে ৪০ টি ম্যাচ খেলে নিয়েছিলেন ৩৭টি উইকেট এবং তিনি ২৮৮ রান করেছেন। এই ফরম্যাটে তার বোলিং গড ছিল ২৫.১, এবং তার একটি অসাধারণ ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট হলো ১৫২.৪।

অক্ষর সমস্ত ফরম্যাটে ধারাবাহিক পারফর্মেন্স করায় ভারতীয় ক্রিকেট দলের জন্য তাকে একটি মূল্যবান সম্পদ করে তোলে। তার বাঁহাতি স্পিন বোলিং, তার হার্ড হিটিং ব্যাটিং সহ তাকে একটি দুর্দান্ত সংযোজন করে তোলে যে কোন দলের জন্য। সে যেহেতু তার দক্ষতা বৃদ্ধি করে চলেছে, নিশ্চিত ভাবে অক্ষর আগামী বছরগুলিতে একটি বড় প্রভাব ফেলবে।