চেতন শর্মার পরিবর্তে এই ৩ জন প্রাক্তন ক্রিকেটার হতে পারেন BCCI-এর মুখ্য নির্বাচক !!

0
0

শেষ পর্যন্ত চেতন শর্মার (Chetan Sharma) চাকরি গেল। প্রবল চাপের মুখে পড়ে চেতন ইস্তফা দিলেন। এমনকি বিসিসিআই (BCCI) সচিব জয় শাহ (Jay Shah) তার ইস্তফা পত্র গ্রহণ করেছেন, মাত্র কয়েক ঘণ্টার স্টিং অপারেশনে চেতন শর্মা সব ফাঁস করে দিলেন, বোর্ডের সব গোপন তথ্য ফাঁস করে দিয়ে চেতন নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন, তিনি সৌরভ গাঙ্গুলি (Sourav Ganguly) বনাম বিরাট কোহলির (Virat Kohli) লড়াইয়ের কথাও উন্মোচন করেছেন। তিনি তার দেওয়া বিবৃতিতে মিথ্যাবাদী আখ্যা দিয়েছেন বিরাট কোহলিকে, এমনকি তিনি জানিয়েছেন যে প্লেয়াররা অ্যান্টি ডোপিং ইনজেকশন এবং ওষুধ খেয়ে নিজেদের ফিট বলে দাবি করে থাকেন। এমনকি তিনি বেশ বিপাকে পড়েছিলেন একাধিক দাবি জানিয়ে, অবশেষে প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন, এমন তিনজন প্রাক্তন ভারতীয় প্লেয়ার আছেন যারা চেতন শর্মার জায়গা নিতে পারেন।

১. অজিত আগারকার

অজিত আগারকার ( Ajit Agarkar) ভারতীয় দলের অন্যতম সেরা পেসার ছিলেন, ভারতীয় দলের এই পেসার জাতীয় দলের হয়ে ২৬ টি টেস্ট খেলেছেন, ৫৮ টি উইকেট নিয়েছেন, বেশি দিন পর্যন্ত টেস্ট ক্যারিয়ার স্থায়ী না হলেও এই অভিজ্ঞ বেশ লম্বা সময় ধরে ওডিআই ক্রিকেটে খেলে এসেছেন, দলের হয়ে ১৯১টি ওডিআই ম্যাচ খেলে নিয়েছিলেন ২৮৮ টি উইকেট, ভারতীয় বোলারদের মধ্যে তিনি সর্বাধিক উইকেট নিয়েছেন, ক্রিকেট থেকে ভারতীয় দলের এই ক্রিকেটার সন্ন্যাস নেওয়ার পর ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ শুরু করেন। জাতীয় দলের নির্বাচক চেতন শর্মা হওয়ার আগে অজিত প্রথম পছন্দ ছিলেন কিন্তু তিনি শেষ মুহূর্তে সরে আসেন ব্যক্তিগত কারণে জন্য, তবে চেতন শর্মার এই ইস্তফার পর অজিত দলের নির্বাচক হতে পারেন।

২. ভেঙ্কটেশ প্রসাদ

ভারতীয় দলের অভিজ্ঞ প্রাক্তন পেসার এই তালিকার দ্বিতীয় নম্বরে আছেন, তিনি ভারতকে একাধিক ম্যাচে জিতিয়েছেন নিজের দক্ষতা, তার শুধু বোলিং দক্ষতা নয় ক্রিকেটিং বুদ্ধিও তুখর, তিনি প্রায়ই সমাজ মাধ্যমে ক্রিকেটিং নিয়ে নানা বিষয় মন্তব্য করে থাকেন। ভারতীয় দলের এই পেসার ৩৩ টি টেস্ট মিলে ৯৬ টি উইকেট নিয়েছেন ও ১৬১ টি ওডিআই ম্যাচে নিয়েছেন ১৯৬ টি উইকেট।

৩. সলিল আনকোলা

এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও বর্তমান দলের সিলেক্টর সলিল অনকোলা, তার ক্রিকেটিং ক্যারিয়ার উজ্জ্বল নাহলেও মুম্বাইয়ের রঞ্জি দলের নির্বাচক হিসাবে তিনি নিজেকে বেশ মেলে ধরেছিলেন। পারিবারিক কারণের জন্য সলিল মানসিক অবসাদে ভুগতেন, কিন্তু ২০২০ সালে তিনি আবার ক্রিকেট মাঠে ফিরে আসেন, তারপর মুম্বাই ক্রিকেট দলের নির্বাচক করা হয় তাকে। ঠিক তারপর আবার তার জীবনে উন্নতি ফিরে আসে, তিনি নতুন নির্বাচিত বিসিসিআইয়ের নির্বাচক মন্ডলীর একজন নির্বাচক হয়ে উঠলেন। চেতন শর্মা ইস্তফা দেওয়ার পর দলের মুখ্য নির্বাচক হতে পারেন তিনি। সলিল আনকোলা একটি টেস্ট খেলে দুটি উইকেট নিয়েছেন এবং ২০ টি একদিনের খেলায় ১৩ টি উইকেট নিয়েছেন।